1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
 কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬

বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে স্কাইফ্লোরার ব্যতিক্রমধর্মী কর্মসূচি

রিপোর্টার
  • আপডেটঃ সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
  • ৩৭ বার পড়া হয়েছে
ডা.এম.এ.মান্নান,টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ
দিন দিন দূষণ যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে আমাদের পরিবেশ বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠছে। সমস্ত প্রাণী জগৎ বিভিন্ন মারণ রোগের শিকার হচ্ছে। দূষণমুক্ত পরিবেশ গঠনে প্রতি বছর ৫ ই জুন বিশ্বব্যাপী রাজনৈতিক কর্মোদ্যোগ আর জনসচেতনতার মাধ্যমে পরিবেশ সচেতনতার উদ্দেশ্যে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন করা হয়। এ নিয়ে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রকৃতি ও পরিবেশের গুরুত্ব অপরিসীম। মানুষের অপরিনামদর্শী কর্মকাণ্ডের কারণে প্রতিনিয়ত পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। ফলে প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে। মানুষ প্রতিনিয়ত দূষিত করছে পরিবেশের মূল উপাদান মাটি, পানি, বায়ুকে।
সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিশ্বের উন্নয়নশীল অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও বায়ুদূষণ মারাত্মক আকার ধারন করেছে। সনাতন পদ্ধতিতে ইট পোড়ানো, যানবাহনের ধোঁয়া, অপরিকল্পিত নির্মাণ কাজ এবং দূষণরোধে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় বায়ু দূষিত হচ্ছে। বায়ুদূষণের ফলে অনেকেই শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন ধরনের অসুস্থতায় ভুগছেন এবং মৃত্যুবরণ করছেন। জাতিসংঘের তথ্যমতে, বায়ুদূষণের ফলে বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর প্রায় ৭০ লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে। এর মধ্যে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে প্রায় ৪০ লাখ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। বায়ুদূষণজনিত রোগ প্রতিকারে প্রতিবছর স্বাস্থ্যসেবা খাতে বিশ্ব অর্থনীতির প্রায় পাঁচ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় হচ্ছে।
বিভিন্ন বিষাক্ত পদার্থ পরিবেশে মিশে পরিবেশ দূষিত হয়। পরিমানের অধিক রাসায়নিক সার ব্যবহার করে দূষিত করা হচ্ছে মাটিকে। পরিবেশের ভারসাম্য বিনষ্ট হচ্ছে। জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়ছে এবং খাদ্য-শৃঙ্খলে ব্যাঘাত ঘটছে। পরিবেশ দূষণের কারণে মানুষ ও জীবজন্তুর ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। মানুষ ক্যান্সার, চর্মরোগ, শ্বাসকষ্ট ও পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে সমুদ্রের পানির উচ্চতা বাড়ছে। দিনে দিনে শহরের সবুজ বৃক্ষের সংখ্যা ব্যাপক হরে কমে যাচ্ছে এবং মানুষ ক্রমান্বয়ে সবুজ থেকে দূরে সরে যাচ্ছে।
কিন্তু এগুলো নিয়ে ভাবার কেও নেই।
শহরের মানুষকে সবুজায়ন নিশ্চিত করার লক্ষে “Total Urban Gardening Solution” এই স্লোগানে মুগ্ধ হয়ে দুই বন্ধু মিলে ২০১৫ সালে কার্যক্রম শুরু করে স্কাইফ্লোরা ডট অর্গ। গত ৬ বছরে ১৮০০০ এরও অধিক বাড়িতে ছাদ বাগান, বারান্দা বাগান, ফুল-ফল বাগান, সবজি বাগান, ঔষধি ও ভেষজ বাগান, অফিস সজ্জা সহ রাস্তা বিভাজক এলাকায় বিভিন্ন ধরণের প্রায় ৫০০০০০ গাছ, প্রায় ১৫০০০০০ স্কয়ার ফুট সবুজ ঘাস রোপন করে।
৫ই জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে স্কাইফ্লোরা ডট অর্গ ব্যতিক্রমধর্মী একটি জনসচেতনতা মূলক প্রচারণা করে। উল্লেখ্য, একজন মানুষ এক দিনে ১১০০০ লিটার অক্সিজেন গ্রহণ করে। এই পরিসংখ্যানকে মাথায় রেখে একটি প্রতীকী অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে একজন মানুষকে ঢাকা শহরের বিভিন্ন রাস্তায় ঘুরতে দেখা যায়। প্রতীকী অক্সিজেন সিলিন্ডার ভরা সবুজ পাতা, মুখে অক্সিজেন মাস্কসহ পরিসংখ্যানসহ ব্যানারটি দেখা যায়।
স্কাইফ্লোরা ডট অর্গ এর সিইও সাজিদ খান বলেন, “Thousands of technology will not work, if you don’t have sufficient plants and vegetables in the community you live in”. আরো বলেন, “যদি আমাদের অর্থনীতি কোনো কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হয় তাহলে কৃষি এবং চাষাবাদ-ই হবে আমাদের একমাত্র উপায়”।
প্রধান কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান তরফদার বলেন, “শহরের প্রতিটি শিশু সবুজের সাথে বেড়ে উঠুক-প্রকৃতির সাথে একাত্ব হোক, এই লক্ষে প্রতিটি বারান্দা, প্রতিটি ছাদকে এক একটি সবুজ বন তৈরী করাই আমাদের মূল লক্ষ্য।”

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০-২২ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন