1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
 কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬ ## ঝিকরগাছা উপজেলার ভিতর ইংরেজি টিউটর দিচ্ছি, যোগাযোগঃ ০১৯১৮ ৪০৮৮৬৩,mohsinlectu@gmail.com 

মায়ের লাঠির আঘাতে কন্যার মৃত্যু, মা গ্রেপ্তার!

দিনাজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেটঃ শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১
  • ২৪৪ বার পড়া হয়েছে

দিনাজপুরের হাকিমপুরে মায়ের লাঠির আঘাতে মানিষা খাতুন নামের নয় বছরের এক কন্যা সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় মা রেজিনা খাতুনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলার বৈগ্রাম এলাকায় এঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, মা রেজিনা খাতুন তার তিন ছেলে মেয়েকে অনেক কড়া শাসনের মধ্যে রাখত। কারও সাথে তেমন মিশতে দিতো না এবং কারও বাড়িতে যেতেও দিতো না। এসবের ব্যাত্যয় হলে মা রেজিনা খাতুন প্রায় তার ছেলে-মেয়েদের বেদম মারধর করতো। রেজিনা খাতুনের তিন ছেলে-মেয়ের মধ্যে মনিষা প্রথম।

হাকিমপুর থানা ওসি (তদন্ত) এসএম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গতকাল শুক্রবার সকালে নিহত মনিষা খাতুন মা কে কোনকিছু না জানিয়ে বাড়ির বাহিরে যায়। পরে মনিষা বাসায় ফিরে এলে মা রেজিনা খাতুন কন্যা মনিষার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং লাঠি দিয়ে বেদম মারপিট করতে থাকে। মারপিটের এক পর্যায়ে মনিষা গুরুত্বর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হাকিমপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। মনিষার অবস্থা আশংখা জনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানাস্তর করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মনিষার মৃত্যু হয়।

এদিকে মেয়েকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে মনিষার বাবা মহসিন আলী আজ শনিবার (০৭-০৮-২১ইং) বাদি হয়ে হাকিমপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে নিজ সন্তানকে হত্যার অভিযোগে মা রেজিনা খাতুনকে সকালে বৈগ্রাম নিজ বাড়ি থেকে আটক করে হাকিমপুর থানা পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০-২২ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন