1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০৫ অপরাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
 কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬ ## ঝিকরগাছা উপজেলার ভিতর ইংরেজি টিউটর দিচ্ছি, যোগাযোগঃ ০১৯১৮ ৪০৮৮৬৩,mohsinlectu@gmail.com 

আজ ইয়াসমিন ট্রাজেডী দিবস

রিপোর্টার
  • আপডেটঃ মঙ্গলবার, ২৪ আগস্ট, ২০২১
  • ১৪৬ বার পড়া হয়েছে
আজ ২৪ আগষ্ট। ইয়াসমিন ট্রাজেডী দিবস। ১৯৯৫ সালের এই দিনে কতিপয় বিপথগামী পুলিশ সদস্য কর্তৃক ধর্ষণ ও হত্যার শিকার হন কিশোরী ইয়াসমিন। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে দিনাজপুরের মানুষ। বিক্ষুব্ধ জনতার উপর নির্বিচারে গুলি চালায় পুলিশ। পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ৫ জন। সে দিন থেকেই সারাদেশে এই দিবসটি পালিত হচ্ছে “নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস” হিসেবে।

১৯৯৫ সালের ২৪ আগষ্ট। দীর্ঘ দিন পর মা’কে দেখার জন্য আকুল হয়ে ঢাকা থেকে দিনাজপুরে বাড়ী ফিরছিলো কিশোরী ইয়াসমিন। ফেরার পথে রাতে দশমাইল মোড় নামক স্থানে নামলে একটি চায়ের দোকান থেকে কতিপয় বিপথগামী পুলিশ তাদের ভ্যানে করে প্রায় জোরপূর্বক নিয়ে যায় কিশোরী ইয়াসমিনকে। পরে ওইসব পুলিশ সদস্য পথিমধ্যে ভ্যানের ভিতরেই কিশোরী ইয়াসমিনকে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে হত্যা করে। পরে তার লাশ শহরে ঢোকার আগে রানিগঞ্জ মোড়ে ব্রাক অফিসের সামনে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে যায় পুলিশ। এ ঘটনার পরের দিন লাশ পেয়ে প্রথমে দশমাইল এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশ হয়। পরে তা ধীরে ধীরে আন্দোলনে রুপ ধারন করে। আন্দোলনের এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে দমাতে পুলিশ নির্বিচারে গুলি চালায়। পুলিশের গুলিতে নিহত হয় সামু, সিরাজ, কাদেরসহ ৫ জন। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয় অনেকে। পরে আন্দোলনের মুখে ওইসব জড়িত পুলিশ সদস্যদের বিচারে ফাঁসির রায় হয় এবং রায়ও কার্যকর হয়।ঘটনার ২৬ বছর হলে গেলেও সেদিনের কথা স্মরণ করে এখনো আন্দোলনকারীসহ দিনাজপুরের মানুষের বুক কেপে ওঠে।

এতো আন্দোলনের পরেও থেমে নেই নারী নির্যাতন কিনবা নারী ধর্ষন। নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা বলছেন রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় মূল অপরাধীরা আইনের চোখে সহজেই ধুলো দিচ্ছেন। নারীরা ঘরে বাহিরে বিভিন্ন ভাবে হয়রানীর স্বীকার হচ্ছেন। তবে অপরাধীদের সায়েস্তা করতে সামাজিক আন্দোলন ছাড়া বিকল্প নেই।
ইয়াসমি আন্দোলনের অন্যতম নেতা ও দিনাজপুর-১ আসনের এই সাংসদ মনোরঞ্জন শীল গোপাল আন্দোলনকারীদের স্বরণ করে জানালেন, নারী ও শিশু নির্যাতন এখনো বন্ধ হয়নি। তবে এইসব নির্যাতনকারীদের সঠিক ও দ্রুত বিচারের লক্ষে একটি শক্তিশালী ট্রাইবুনায় গঠন করা প্রয়োজন।ইয়াসমিন ট্রাজেডির পর প্রতিবছর ২৪ আগস্ট সারা দেশের মত দিনাজপুরেও নানা আয়োজনে পালিত হয় নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস। (এবার করোনার কারনে তা সীমিত করা হয়েছে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০-২২ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন