1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬

কোটচাঁদপুরে জমাকৃত ৭৯ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে ব্যাংক কতৃপক্ষ উধাও গ্রাহকদের মানববন্ধন

সম্রাট হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময়ঃ শুক্রবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে আজিজ কো-অপারেটিভ কর্মাস এন্ড ফাইন্যাল ক্রেডিট সোসাইটি লিঃ এর বিরুদ্ধে গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগীরা।শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে কোটচাঁদপুর শাখার সামনে মানববন্ধন করেন ভুক্তভোগীরা।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা বলেন, আমাদের কে প্রলোভন দেখিয়ে এডিআর সঞ্চয় ও নানা ভার্সনের লগ্নির নামে অর্থ গ্রহণ করলেও এখন চোখ পাল্টি দিচ্ছে গত কয়েক বছর। দিনের পর দিন ঘুরানো হচ্ছে মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়া গ্রাহকদের। টাকা ঢাকায় আটকে আছে দোহাই দিয়ে কালক্ষেপণ করছেন কোটচাঁদপুর শাখার কর্মকর্তারা।

সাবেক সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা ও বর্তমান কোটচাঁদপুর শাখার ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম মন্টু ও ব্যাংকের জৈনক কথিত কর্মকর্তা রতন। গ্রাহকদের টাকা নিয়ে দফায় দফায় দিন তারিখ দিয়ে কোনো সুরাহ না করে প্রতারণা করে চলেছেন। আর নিজে অল্প দিনেই ধনী বনে গেছেন।

ভুক্তভোগীরা মানববন্ধনের অভিযোগে বলেন, আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্সের কোটচাঁদপুর শাখার ম্যানেজারের কথায় বিশ্বাস করে কোটচাঁদপুর শাখায় ৩৭ জন গ্রাহক পর্যায়ক্রমে প্রায় ৭৯ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা টাকা নিয়ে কর্তৃপক্ষ উধাও ৭ মাস ঘুরেও সমাধান মেলেনি বন্ধ করে রাখা হয়েছে ব্যাংকের শাখা। সাবেক পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা

মতিয়ার রহমান বলেন আমার এল পি আর এর ২০ লাখ টাকা সঞ্চয় নং -২৭২, রকি ২ লক্ষ বিশ হাজার টাকা সঞ্চয় নং -২, বিকাশ তিনি পেশায় রিকশাচালক ২ লক্ষ টাকা,দেলোয়ার হোসেন ৪০ হাজার সঞ্চয় নং-১২৭,সহ ৩৭ জন গ্রাহক প্রতারণার শিকার হয়েছে। ভুক্তভোগীরা টাক ফেরত পেতে মানববন্ধনে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মানববন্ধন শেষে আবু বক্কর সিদ্দিক বাদী হয়ে কোটচাঁদপুর মডেল থানায় অভিযোগ করেন বলে জানান। মানববন্ধনের বিষয়ে শাখার ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম মন্টুর কাছে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান ২০২০ সালের জুলাই মাসে আমি অবসর নিয়েছি টাকা জমা দিয়েছে ব্যাংকে তার দায়ভার আমার হবে কেনো। তারপরেও বর্তমান ব্যাংকের এমডি কোথায় আছে আমার জানা নেই। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায় ৩ শত কোটি টাকা কানাডায় পাচারের দায়ে ব্যাংকের এমডি আজিজুর রহমান জেল খানায় আছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০২১ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন