1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:১৯ অপরাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
 কপোতাক্ষ  নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬

এবার চায়নার নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে যেতে আন্দোলনে বাংলাদেশি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা

নাজমুল হোসেন, চায়না প্রতিনিধি
  • আপডেটঃ রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৬০ বার পড়া হয়েছে

এবার চায়নার নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে যেতে আন্দোলনে বাংলাদেশি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা।করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশে ছুটিতে আসা চীনে অধ্যনরত ছয় হাজার শিক্ষার্থী আটকা পড়েছেন। ভ্যাকসিন নিলেও তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেরত যেতে পারছেন না। তাই পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সহযোগিতায় দ্রুত ভিসা চালু করার দাবিতে লাগাতর আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী আন্দোলন যুক্ত হয়েছেন। সুনির্দিষ্ট ঘোষণা এবং এর কার্যক্রম শুরু না হলে আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলেও জানিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থিরা।

শিক্ষার্থীরা জানান, চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি ছয় হাজার শিক্ষার্থী করোনার কারণে দেশে ছুটিতে আসেন। তারা প্রায় দুই বছর ধরে বাংলাদেশে অবস্থান করলেও এখনো চীনে ফেরত যেতে যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ । তাদের তিন বছরের কোর্সের মধ্যে দুই বছর অতিবাহিত হতে চলছে। আটকা পড়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮০ শতাংশ মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে পড়ালেখা করছেন। অনলাইন ক্লাস করে তাদের কোর্স শেষ করা সম্ভব হচ্ছে না। ল্যাব এবং প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস জরুরি হয়ে পড়লেও এখনো তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে ভিসা পাচ্ছেন না।
তারা বলেন, চীনের শর্ত অনুযায়ী আমরা দুই ডোজ করোনা ভ্যাকসিন নিলেও ভিসা দেওয়া হচ্ছে না। বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস করতে না পারায় আমরা অনেক পিছিয়ে পড়ছি এবং আমাদের শিক্ষা জীবন এবং পরবর্তি ভবিষ্যত হুমকিত মুখে পরছে । বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে পরবর্তী সেমিস্টার করতে না পড়ালে আমাদের পড়ালেখা ও ক্যারিয়ার ঝুঁকির মধ্যে পড়বে।
আন্দোলনের মডারেটর তানভির আহমেদ রোহেদ সত্তের সকাল কে বলেন চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃত্তি নিয়ে কেউ মাস্টার্স এবং পিএইচডি কোর্সে গবেষণার কাজে যুক্ত রয়েছেন। চীনে যেতে না পারায় বর্তমানে তাদের বৃত্তির ভাতা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অর্থনৈতিক সমস্যার মধ্যে দিন পার করছেন। সমস্যার কথা উল্লেখ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ছয় দফায় আবেদন জানালেও তারা কোনো ধরণের পদক্ষেপ নেয়নি। তারা আমাদের বিষয়ে উদাসীন আচরণ করছেন বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা ।
তিনি বলেন, পার্শবর্তী দেশ পাকিস্তানের শিক্ষার্থীরা এক মাস আগে চীনে চলে গেলেও আমাদের ভিসা দেওয়া হচ্ছে না। দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় আমরা ঘর ছেড়ে রাজপথে এসে আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছি। সুনির্দিষ্ট ঘোষণা ছাড়া আন্দোলন ছেড়ে বাড়ি ফিরবেন না বলেও ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০-২২ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি

ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন