1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ

কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬

ছেলের প্রাণ বাঁচানোই এখন  মনিরের একমাত্র লড়াই

রিপোর্টার
  • আপডেটঃ মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬৫ বার পড়া হয়েছে
রাজশাহী ব্যুরোঃ মাত্র ১৩ বছরের বিশাল শেখ। গরিব বাবা-মার ঘরে জন্ম নিলেও আদরের কমতি ছিল না তার। তাই সংসারে চরম অভাব থাকলেও ছেলেকে কাজ করতে দেননি বাবা মনির শেখ। ছেলেকে বড় মানুষ করার স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি করিয়েছেন স্কুলে। কিন্তু অল্প কদিনেই ভেঙে যেতে বসেছে মনির শেখের সেই স্বপ্ন। পড়াশোনাতো দূরে থাক, ছেলের প্রাণ বাঁচানোই এখন মনির শেখের জীবনের একমাত্র লড়াই। সারা দিন মাঠে-ঘাটে দৌড়ে বেড়ানো বিশালের ঠিকানা এখন হাসপাতালের বিছানা।
রাজধানীর পান্থপথের শমরিতা হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডে ভর্তি আছে বিশাল শেখ। লিভার, প্যানক্রিয়েটিক ও বিলিয়ারি সার্জন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ মোহছিন চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন। তার বাড়ি নওগাঁর আত্রাই উপজেলার ভোঁপাড়া ইউনিয়নের তিলাবদুরী গ্রামে। ভোঁপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়ে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, হেপাটোবিলিয়ারি সিস্টেমের সমস্যায় আক্রান্ত বিশাল। দ্রুত অপারেশন না করালে হেপাটোবিলিয়ারি ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
বাবা মনির শেখ বলেন, মাস দুয়েক আগে ফুটবল খেলেতে গিয়ে বিশালের বুকে বলের আঘাত লাগে। এরপর থেকেই নিয়মিত বুকের ব্যথার কথা বলতে থাকে সে। সেসময় গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলে তিনি কিছু ওষুধ দেন। এরপর ব্যথা না কমে দিনদিন বাড়তে থাকে। পরে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা বিশালকে রাজশাহী কিংবা ঢাকা নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে বিশালকে সিরাজগঞ্জের খাজা ইউনুস আলী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল নিয়ে গেলে তার লিভারে সমস্যা বলে জানান চিকিৎসকরা। এরপর তাদের পরামর্শে ঢাকায় আসি। এখন চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দ্রুত অপারেশন না করালে বিশালের ক্যান্সার হয়ে যেতে পারে। তখন তাকে বাঁচানো আরো কঠিন হয়ে যাবে। কিন্তু অপারেশন করতে ৪ লাখ টাকার বেশি লাগবে।
চার লাখের মধ্যে সামান্য জমি বন্ধক দিয়ে ১ লাখ টাকা পেয়েছেন মনির। এছাড়াও আশপাশের মানুষের সহায়তায় আরো ১ লাখ টাকা জোগার হয়েছে। কিন্তু বাকি টাকা জোগারের কোনো উপায় নেই তার। তাই দেশের বিত্তবানদের কাছে তার ছেলের জীবন বাঁচাতে সাহায্য চান।বিশালের মা তিথি কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘হামরা গরিব মানুষ, তিনবেলার খাওনই জোগার করতে পারি না। এখন এত ট্যাকা কুনটে পামু! আপনারা হামার ছোলের (সন্তানের) জীবনটা বাঁচান। বিশাল শেখের অপারেশনের জন্য ০১৩১৫৫৮৪৩২২ (মনির শেখ) বিকাশ নাম্বারে সাহায্য পাঠানো যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০২১ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন