1. mohsinlectu@gmail.com : mahsin :
  2. zahiruddin554@gmail.com : Md. Zahir Uddin : Md. Zahir Uddin
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন
বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ

কপোতাক্ষ নিউজে আপনাকে স্বাগতম! (খালি থাকা সাপেক্ষে) দেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭২৭-৫৬৭৯৭৬

যুদ্ধাপরাধীর সভাপতিত্বে ঝিনাইদহে হচ্ছে ওয়াজ মাহফিল

রিপোর্টার
  • আপডেটঃ শুক্রবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২১
  • ২১ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে করেছে দেশের বিরোধীতা। যুদ্ধাপরাধীর তালিকায় রয়েছে তার নাম। আন্তর্জাতির অপরাধ ট্রাইবুনালে চলছে মামলা। বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে অপহরণ, খুন, মানুষের বাড়িতে আগুন দেওয়া, হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের জমি জোরপুর্বক দখল করাসহ নানা অপরাধে অভিযুক্ত তিনি। বর্তমানে হজ করেছে হাজী সেজে থাকছেন এলাকায়। এলাকাবাসীর আয়োজিত ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করছেন তিনি।

তিনি ঝিনাইদহ পৌরসভার পবহাটি এলাকার বাসিন্দা বদরউদ্দীন আহম্মেদ বদু। আগামী ২৭ নভেম্বর ওই গ্রামে আয়োজিত ওয়াজ মাহফিল ও ইছালে ছওয়াবের সভাপতিত্ব করবেন তিনি। এ সংক্রান্ত লিফলেট এলাকায় বিতরণ করা হচ্ছে। করা হচ্ছে মাইকিং।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৬ সালের ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার স্বাক্ষরিত পাঠানো রাজাকার পিচ কমিটি, আলসাম, আলবদরের পাঠানো তালিকায় বদর উদ্দিন আহম্মেদ’র নাম রয়েছে ৪১ নম্বরে। একজন যুদ্ধাপরাধীর ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করবেন এমন খবরে এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
ঝিনাইদহ সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সিদ্দিক আহম্মেদ বলেন, আমরা ১৬ ডিসেম্বরের পর দেশে আসার পর শুনেছি সে রাজাকার ছিল। স্ব-শরীরে স্বাধীনতা বিরোধীদের সাথে গিয়ে মানুষের ক্ষতি করেছে।
পবহাটি গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা বদিরুজ্জামান বলেন, রাজাকার বদু ওয়াজ মাহফিলের সভাপতিত্ব করছেন এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক। স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি বাংলাদেশে আজ থাকলেও বদুর মত রাজাকার, আলবদর এখনো তাদের রাজত্ব কায়েম করে চলেছে। এটি আমাদের জন্য বড় ব্যার্থতা বলে আমি মনে করি।
একই গ্রামের শরিফুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকতেও এই ধরনের স্বাধীনতা বিরোধীরা কিভাবে ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সভাপতি হয়। এটি মানা যায় না।এদিকে বদরউদ্দীন আহম্মেদ বদুর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার হলে তিনি বলেন, আমার নাম রাজাকারের তালিকায় উঠেছিলো কিন্তু বর্তমানে নেই। এটি গ্রাম্য ষড়যন্ত্রের কারণে হয়েছিলো।এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। শোনার পর খোঁজ খবর নিয়ে বিষয়টি দেখব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© ২০২১ কপোতাক্ষ নিউজ । এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
ডেভলপমেন্ট এন্ড মেইনটেন্যান্স: মোঃ জহির উদ্দীন